Monday, April 22, 2024
spot_img
HomeLatest Newsপ্রাইভেট গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করে সাইকেলবান্ধব পরিবেশ চাই

প্রাইভেট গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করে সাইকেলবান্ধব পরিবেশ চাই

রাজধানী ঢাকায় প্রতিদিন অন্তত ২ লাখ মানুষ সাইকেলে যাতায়াত করে বলেন এক গবেষণার প্রেক্ষিতে জানা গেছে। ঢাকা বিশদ অঞ্চল পরিকল্পনা (২০১৬-২০৩৫) অনুযায়ী, নগরে সাইকেলবান্ধব যাতায়াত ব্যবস্থা নিশ্চিত হলে এ সংখ্যা আরও বাড়বে। বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, মূল সড়কে সাইকেলের গতি ঘণ্টায় ১৩.৪ কিলোমিটার। অর্থাৎ ঢাকার যাতায়াত ব্যবস্থায় সাইকেলকে প্রাধান্য দিয়ে পরিকল্পনা করা হলে দ্রুত ও নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছানো সম্ভব হবে। পাশাপাশি হ্রাস হবে জ্বালানি ব্যয়। উন্নত হবে জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের। ফলে ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ন্ত্রণ করে সাইকেলবান্ধব যাতায়াত নিশ্চিতের দাবি তরুণ সমাজের।

 

শনিবার সকালে রাজধানীর শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার পর্যন্ত বিশ্ব ব্যক্তিগত গাড়িমুক্ত দিবস ২০২২ পালন উপলক্ষে আয়োজিত ‘ব্যক্তিগত গাড়ির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ করি, পরিকল্পিত সাইকেল নেটওয়ার্ক গড়ে তুলি’ শীর্ষক সাইকেল র‌্যালি থেকে তারা এ দাবি জানান।

প্রত্যাশা মাদকবিরোধী সংগঠন, বাংলাদেশ সাইকেল লেন বাস্তবায়ন পরিষদ, রায়েরবাজার উচ্চবিদ্যালয়, ঢাকা আইডিয়াল ক্যাডেট স্কুল, ধানম-ি ট্যুরিজম সাইক্লিস্ট, লিও ক্লাব অব ঢাকা ওয়েসিস, ফিমেল সাইকেলার্স অব বাংলাদেশ, সূর্য শিশির রানার্স কমিউনিটি, ইনস্টিটিউট অব ওয়েলবিইং বাংলাদেশ, কার ফ্রি সিটিস এলায়েন্স বাংলাদেশ এবং ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের উদ্যোগে আয়োজিত এ র‌্যালিতে সভাপতিত্ব করেন ওয়ার্ক ফর এ বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের পরিচালক গাউস পিয়ারী।

 

সহকারী প্রকল্প কর্মকর্তা মোঃ মিঠুনের সঞ্চালনায় আয়োজনে বক্তব্য দেন এম এ মান্নান মনির, তাহাজ্জোত হোসেন, আকিব দীপু, সিফাত হারুন, আ ন ম মাছুম বিল্লাহ ভুঁইয়া, আমিনুল ইসলাম টুব্বুস, সাইক্লিস্ট দিদার হোসেনসহ আরও অনেকে। এ সময় বক্তারা বলেন, ঢাকা শহরে উল্লেখযোগ্য মানুষ সাইকেলে যাতায়াত করে। তরুণ প্রজন্মের অনেকেই সাইকেল চালিয়ে যাতায়াতে আগ্রহী। কিন্তু সাইকেলবান্ধব অবকাঠামো না থাকায় তাদের ঝুঁকি নিয়ে সাইকেল চালাতে হচ্ছে। এজন্য সাইকেল চালাতে তারা নিরুৎসাহিতও হয়। বর্তমানে যানজট ও জ্বালানি সঙ্কট আমাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।

 

এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সাইকেলে যাতায়াত সবার জন্য সহজ ও জনপ্রিয় করা প্রয়োজন। বক্তারা আরও বলেন, স্ক্যান্ডিনেভিয়া এবং ইউরোপের অনেক আধুনিক শহরে সাইকেল অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি যাতায়াত মাধ্যম। পৃথিবীর অনেক শহরে করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলার অংশ হিসেবে শহরে সাইকেলে যাতায়াতের সুযোগ বৃদ্ধি করা হয়েছে।

যেমন-বোগোতা, ভ্যানকুভার, সিডনিসহ বিভিন্ন শহরে অস্থায়ী সাইকেল লেন তৈরির পাশাপাশি কিছু রাস্তা ব্যক্তিগত গাড়ির জন্য বন্ধ করে দিয়ে মানুষের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে, যাতে তারা শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করতে পারে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments