Thursday, February 29, 2024
spot_img
Homeবাংলারাইড শেয়ারিং ভ্রমণে সহযাত্রী সম্পর্কেও জানতে হবে

রাইড শেয়ারিং ভ্রমণে সহযাত্রী সম্পর্কেও জানতে হবে

১০০ সিসির মোটরবাইক চালান বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা হাবিব জালাল। যাতায়াতের পথে তিনি প্রতিদিন অ্যাপের মাধ্যমে একজন যাত্রী পরিবহন করেন। এতে মাসের যাতায়াতের খরচ উঠে আসে তাঁর। কিন্তু একদিন ঘটল বিপত্তি। নির্দিষ্ট স্থানে যাত্রী নিতে এসে দেখলেন, যাত্রীর ওজন ১০০ কেজির বেশি। কিন্তু তিনি বেশ হালকা–পাতলা। উচ্চতায় বেশ কম। দুজন বসার পর উড়ালসড়ক থেকে নামার সময় মোটরবাইক নিয়ন্ত্রণ করতে বেশ সমস্যায় পড়েন তিনি। সাবধানে পথচলায় কোনো দুর্ঘটনা না ঘটলেও বুঝতে পারলেন, মোটরবাইকে সহযাত্রী সম্পর্কে আগে থেকে তথ্য জানা বেশ জরুরি।

মোটরবাইক চালানোর সময় এ ধরনের সহযাত্রীর বিড়ম্বনায় পড়েননি, এমন চালকের সংখ্যা খুবই কম। এ ধরনের বিড়ম্বনা যে শুধু ভাড়ায় যাত্রী পরিবহনের সময় হয়ে থাকে, তা নয়। বন্ধুবান্ধব বা আত্মীয়স্বজনের ক্ষেত্রেও হয়ে থাকে। মোটরবাইকে দ্বিতীয় আসনে যে আরোহী বসেন, তাঁকে পিলিয়ন বলা হয়। নিরাপদে পথচলার সময় ওজনের চেয়েও সহযাত্রীর বসার ধরন বেশি গুরুত্বপূর্ণ। পেছনের আসনে বসা যাত্রী দুই পাশে পা দিয়ে বসলে মোটরবাইকের ভারসাম্য ভালোভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। তবে একটি বিষয় মনে রাখা ভালো, চালক ও সহযাত্রীর বসার দূরত্ব বেশি হলে মোটরবাইক নিয়ন্ত্রণে সমস্যা হয়। এ ছাড়া একেবারে গা ঘেঁষে বসলেও চালকের সমস্যা হয়। তাই মাঝামাঝি স্থানে বসে সহযাত্রীকে মোটরবাইকের গ্রাব রেইল (হাতল) ধরে বসতে হবে। এ ছাড়া নারী যাত্রীদের অবশ্যই ওড়না বা শাড়ি গুছিয়ে বসতে হবে। কাপড় যেন কোনোক্রমেই মোটরসাইকেলের চাকা বা চেইনে লাগতে না পারে, এ বিষয়ে বিশেষ নজর দিতে হবে। মোটরসাইকেলে বসে অনেকে এগজস্ট পাইপ বা সাইলেন্সারের ওপর পা দিয়ে বসেন। এতে জুতার তলা পুড়ে যেতে পারে। তাই অবশ্যই পাদানিতে পা রাখতে হবে।

সহযাত্রীর ওজন চালকের তুলনায় বেশি হলে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। এ সময় পথ চলতে গতির চেয়ে নিরাপত্তাকে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে। ১২৫ সিসির কম ক্ষমতার মোটরবাইকে বেশি ওজনের যাত্রী বসলে গতি কমে যেতে পারে। এতে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। সহযাত্রীকে অবশ্যই স্থির হয়ে বসতে হবে। বেশি নড়াচড়ার কারণে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ ছাড়া মোটরবাইকে বসে কখনোই পা দিয়ে রাস্তা ছোঁয়ার চেষ্টা করা যাবে না। এতে চালকের নিয়ন্ত্রণ হারানোর ভয় থাকে।

সহযাত্রী নিয়ে নিরাপদে মোটরবাইক চালানোর জন্য যাত্রা শুরুর আগে অবশ্যই চালককে ভালোভাবে লুকিং গ্লাস ঠিক করে নিতে হবে। মনে রাখতে হবে, সহযাত্রী মোটা হলেও চালককে ভালোভাবে পেছন দেখার জন্য লুকিং গ্লাস ঠিক করতে হবে। রাস্তায় মোড় নেওয়ার সময়ও সহযাত্রী বিষয়ে চালককে সতর্ক থাকতে হবে। এ সময় অতিরিক্ত নড়াচড়া বা বসার ধরন পরিবর্তন না করার জন্য আগেই সহযাত্রীকে বলে রাখা ভালো। চলতি পথে প্রয়োজন ছাড়া খোশগল্প থেকে বিরত থাকতে হবে। এতে চালকের মনোযোগের বিঘ্ন ঘটে

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments